Close

ইবি’র প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট: পারিবারিকভাবে প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় কারণে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) মুমতা হেনা নামে এক ছাত্রী আত্মহত্যার দুই ঘণ্টা পর একই সেশনের তার প্রেমিক রোকনুজ্জামান আত্মহত্যা করেছেন। উভয়ে ইবির ফিন্যান্স এ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থী।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নিজ কক্ষে ফ্যানের সাথে ঝুলে মুমতা হেনা আত্মহত্যা করে এ খবর শোনার পর রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার প্রেমিক মতি মিয়া রেলগেট এলাকায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

জানা যায়, ইবির আল হাদিস এ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আশরাফুল আলমের মেয়ে মুনতা হেনার সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তার সহপাঠী রোকনুজ্জামান। পারিবারিকভাবে তাদের প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঝিনাইদহ শহরের ঝিনুক টাওয়ারের পঞ্চম তলায় নিজ শয়ন কক্ষে মধ্যে ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেন হেনা।

এদিকে প্রেমিকার আত্মহত্যার খবর শুনে কুষ্টিয়া শহরের পিয়ারাতলায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার মতি মিয়ার রেলগেইট নামক স্থানে পোড়াদহ থেকে ছেড়ে যাওয়া গোয়ালন্দগামী শাটল ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন রোকনুজ্জামান। তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা এলাকায়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) শেখ এমদাদুল হক জানান, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঝিনাইদহ শহরের ঝিনুক টাওয়ারের পঞ্চম তলায় সয়ন কক্ষে ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস নেওয়া এক ইবির ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি তদন্ত চলছে।

পোড়াদহ জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আজিজ জানান, কুষ্টিয়ার সদর উপজেলার মতি মিয়া রেলগেট এলাকায় পোড়াদহ থেকে গোয়ালনন্দগামী ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গায় এবং সে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র। ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ইতিমধ্যে চুয়াডাঙ্গায় ইবি শিক্ষার্থী রোকনুজ্জামানের জানাজার নামাজ সম্পন্ন হয়েছে। এবং সাতক্ষীরায় মুমতা হেনার জানাজার নামাজ বেলা ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে তাদের সহপাঠিরা জানিয়েছে।

এদিকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. হারুন-উর-রশিদ আসকারী, প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মো. শাহিনুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো. সেলিম তোহা এক যৌথ শোকবার্তায়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১১-২০১২ শিক্ষাবর্ষের (শেষ বর্ষ) মেধাবী ছাত্র রোকনুজ্জামান এবং ছাত্রী মুনতাহেনা এর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শোকবার্তায় তারা বলেন, রোকনুজ্জামান এবং হেনার পরিবারের সাথে আমরাও বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা শোকাহত ও ব্যথিত। তারা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, জীবনে চলার পথে ঘাত-প্রতিঘাত এবং যে কোন সমস্যা আসতেই পারে। কিন্তু আত্মহত্যা কোন সমস্যার সমাধান হতে পারে না। এ ধরনের অকাল মৃত্যু কারো কাম্য নয়।

তারা আরও বলেন, রোকনুজ্জামান এবং হেনা চলে গেছে না ফেরার দেশে কিন্তু তাদের রেখে যাওয়া স্মৃতি পিতা-মাতার পাশাপাশি শিক্ষক হিসেবে আজীবন আমাদেরকে বয়ে বেড়াতে হবে। ভাইস চ্যান্সেলর, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর এবং ট্রেজারার মরহুম ও মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোক পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

Share on Facebook
নিউজটি 99 বার পড়া হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ

16129961_1730814400566375_1235166755_o