Close

শেখ মুজিবুর রহমান একটি মহাকাব্যের মহানায়কের নাম

‘শেখ মুজিবুর রহমান একটি মহাকাব্যের নায়ক ছিলেন। এই মহাকাব্য জাতীয়তাবাদের। আরো নির্দিষ্টার্থে এ হচ্ছে পাকিস্তারি রাষ্ট্র কাঠামোর অধীনে বাঙালি জাতীয়তাবাদী অভ্যুত্থান ও পরিণতিতে নতুন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার। সবাইকে তিনি ছাড়িয়ে গেছেন, ছাপিয়ে উঠেছেন। কেন পারলেন? অন্যরা কেন পারলেন না? ..কেন পারলেন? অন্যরা কেন পারলেন না? প্রধান কারণ সাহস।

শেখ মুজিবের মতো সাহস আর কারও মধ্যে দেখা যায়নি। ফাঁসির মঞ্চে গিয়েও তিনি একাধিকবার ফিরে এসেছেন।.. শেখ মুজিবের সাহস ব্যক্তিগত স্বার্থের পুষ্টিসাধনে নিয়োজিত হয়নি। তিনি দাঁড়িয়েছিলেন একটি পরিচিত দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে, রাষ্ট্রের বিপক্ষে। ..,পরিণত হয়েছিলেন জনগণের নেতায়। তার সাহস জনগণের আকাঙ্খাকে মূর্ত করার জাতীয়তাবাদী সাহস।’ বাঙালির স্বাধীনতা আন্দোলনের অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে এ মূল্যায়ণ প্রাবন্ধিক-গবেষক প্রফেসর ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর।

১৯৭১ সালে বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রাম আর মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়ে বিশ্বজুড়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৭১-এর ২৫ মার্চ কালরাত্রিতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর ক্র্যাক ডাউন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ সাপ্তাহিকী ‘নিউজউইক’-১৯৭১-এর ৫ এপ্রিলের সংখ্যার প্রচ্ছদ বাঙালির মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উৎসর্গ করে শিরোনাম দেয়-‘পোয়েট অব পলিটিক্স’ বা ‘রাজনীতির কবি।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ননা তুলে ধরে ‘নিউজউইক’ এর প্রচ্ছদ কাহিনীতে লেখা হয়-‘টল ফর এ বেঙ্গলি…মুজিব ক্যান এ্যাট্রাক্সট এ ক্র্যাউড অব মিলিয়ন পিপল টু হিজ র‌্যালিস এ্যান্ড হোল্ড দেম স্পেলবাউন্ড উইথ গ্রেট রোলিং ওয়েভস অব ইমোশন রিটোরিক। হি ইজ এ পোয়েট অব পলিটিক্স।’ বিশ্বখ্যাত সাপ্তাহিকী ‘নিউজউইকে’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি সংবলিত ‘পোয়েট অব পলিটিক্স’ সংখ্যাটিতে ১৯৭১-এর ২৫ মার্চ রাত্রিতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর ইতিহাসের নৃশংসতম গণহত্যা, ধ্বংসযজ্ঞ ও ধর্ষণের লোমহর্ষক বর্বরতার বর্ননা তুলে ধরে এর বিরুদ্ধে শেখ মুজিবুর রহমানের দৃঢ়চেতা ও আদর্শ নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ বাঙালির মহান মুক্তিযুদ্ধকে ন্যায়সঙ্গত হিসেবে উল্লেখ করা হয়-যার মাধ্যমে বাঙালির ন্যায়সঙ্গত স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে প্রথম বিশ্বজুড়ে আলোচনার সৃষ্টি হয়।

ব্রিটেনের সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক লন্ডন অবজারভার ১৯৭১ সালের বিভিন্ন সংখ্যায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ ও সাহসী এবং দৃঢ়চেতা সন্তান হিসেবে উল্লেখ করে তার নেতৃত্বে পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধকে ন্যায়সঙ্গত হিসেবে উল্লেখ করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নৃশংসতম গণহত্যাযজ্ঞের বর্ননা তুলে ধরে।

Share on Facebook
নিউজটি 57 বার পড়া হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ

16129961_1730814400566375_1235166755_o