Close

পদ্মায় স্রোতের কারণে বসানো যায়নি সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান

গভীরতা ও স্রোতের তীব্র চাপের কারণে পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর কাজ ব্যাহত হচ্ছে। শনিবার সকাল থেকে সারাদিন চেষ্টা করেও শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা প্রান্তের ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর দ্বিতীয় স্প্যান বসানো সম্ভব হয়নি। রোববার দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর কাজ আবারো শুরু হবে বলে জানা গেছে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের সার্ভেয়ার (সিএসসি) মীর ফারুক হোসেন এ তথ্য জানিয়ে বলেন, ৩৮ ও ৩৯ পিলারের মাঝখানে অধিক গভীরতা ও স্রোতের কারণে ৭বি স্প্যানটি নিয়ে ভাসমান ক্রেনটি বারবার চেষ্টা করেও পিলারের কাছে মুভ করতে পারেনি। তাই কিছুটা সমস্যা হয়েছে। তবে স্প্যানটি বসানোর জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, কুয়াশার কারণে স্প্যান বসানোর কাজে কিছুটা ব্যাঘাত হয়েছে। ১২টি স্প্যান প্রকল্প এলাকায় আছে। তৃতীয় স্প্যানটিও বসানোর মতো অবস্থায় আছে। এখন কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। আগামীকাল (আজ রোববার) আবার স্প্যানটি বসানোর কাজ শুরু করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শনিবার সকাল থেকেই ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য দ্বিতীয় স্প্যানটি ৩৮ ও ৩৯ নং পিলারের ওপর বসানোর আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সকাল থেকে ৩৬শ’ মেঃ টন ওজনের শক্তিশালী ভাসমান একটি ক্রেন দিয়ে দ্বিতীয় স্প্যানটি বসানোর জন্য কাজ শুরু করে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত ক্রেনটি কাজ করে স্প্যানটি ওপরে তুলে ৩৮ ও ৩৯ নং পিলারের কাছে পৌঁছাতে পারেনি। নদীর নাব্যতা সংকটের কারণে ক্রেনটি পিলারের কাছে পৌঁছাতে না পারায় অবশেষে বিকেল সাড়ে ৪টায় আপাতত কর্মবিরতি রাখে। নদী ড্রেজিং করে রোববার সকাল থেকে পুনরায় স্প্যানটি বসানোর জন্য কাজ শুরু করবে বলে জানিয়েছে পদ্মা সেতুর মূল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেজর ব্রিজের এক কর্মকর্তা।

২ দিন আগে ৩৬শ’ মে. টন ওজনের শক্তিশালী ভাসমান ক্রেন তি আন ই হাউ পদ্মার উত্তর পাড় কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন থেকে স্প্যান নিয়ে জাজিরা পদ্মার দক্ষিণ পাড়ে অবস্থান করছে। এ স্প্যানটি বসানো হলে পদ্মা সেতুর কাজ আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে। দৃশ্যমান হবে ৩০০ মিটার পদ্মা সেতু। ইতোমধ্যে পদ্মা সেতুর ৫৬ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি কাজ সময়সীমার মধ্যে শেষ হবে বলে আশা করছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২ পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো এবং সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি।

এদিকে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ড. জামিলুর রেজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে গত বৃহস্পতিবার থেকে পদ্মা সেতুর ১১ সদস্যের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে পাঁচজন বিদেশি বিশেষজ্ঞও রয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার সকালে প্যানেলের বিশেষজ্ঞরা মাওয়া হয়ে জাজিরা সার্ভিস এরিয়ায় যান। পরে সকাল ৮টায় ওই সভা শুরু হয়। দুপুর ১টায় বিরতি দিয়ে আড়াইটায় আবার শুরু হয় সভা। তারপর সভা চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।
সূত্র আরো জানায়, গত শুক্রবারও প্রায় একই রুটিনে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত সভা চলে। পাইল, সুপার স্ট্রাকচার, সাব-স্ট্রাকচারসহ নানা ইস্যুতে সভা অনুষ্ঠিত হলেও এর এক নাম্বার এজেন্ডা হচ্ছে ১৪টি পিলারের নকশা চূড়ান্ত করা।

Share on Facebook
নিউজটি 321 বার পড়া হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ

16129961_1730814400566375_1235166755_o